আজ- বুধবার, ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কাজুবাদাম, কফিসহ অপ্রচলিত ফসল চাষে পাহাড়ের অর্থনৈতিক চেহারা পাল্টে যাবে: কৃষিমন্ত্রী


।। রুমা (বান্দরবান) প্রতিনিধি।।

বান্দরবানের রুমা উপজেলায় সফরকালে কৃষিমন্ত্রী ড. মো: আবদুর রাজ্জাক বলেছেন “কাজুবাদাম, কফিসহ অপ্রচলিত ফসল চাষে পাহাড়ের অর্থনৈতিক চেহাড়া পাল্টে যাবে”। শনিবার সকালে রুমা উপজেলায় কাজুবাদাম বাগান, কফি বাগান, আম বাগান সহ বিভিন্ন ফসলের বাগান পরিদর্শন শেষে এ কথা বলেন তিনি। তিনি বলেন, দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার এখন কৃষিকে বাণিজ্যিকীকরণ ও লাভজনক করতে নিরলস কাজ করছে। কৃষিকে লাভজনক করতে হলে কাজুবাদাম, কফি, গোলমরিচ সহ অপ্রচলিত অর্থকরী ফসল চাষ করতে হবে। শুধু দেশ নয়, আন্তর্জাতিক বাজারেও এসবের বিশাল চাহিদা রয়েছে, দামও বেশি। সেজন্য এসব ফসলের চাষাবাদ ও প্রক্রিয়াজাত বাড়াতে হবে। পাহাড়ের বৃহৎ এ অঞ্চল জুড়ে এসব ফসল চাষের সম্ভাবনা অনেক। এছাড়া আনারস, আম, ড্রাগনসহ অন্যান্য ফল চাষের সম্ভাবনাও প্রচুর। তিনি জানান, কৃষি বিভাগ কাজুবাদাম ও কফির উন্নত জাত ও প্রযুক্তি উদ্ভাবন এবং এসব ফসলের চাষ আরও ব্যাপক ভাবে ছড়িয়ে দিতে কাজ করছে। এটি করতে পারলে পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় অর্থনীতিতে বিপ্লব ঘটবে। পাহাড়ি এলাকার মানুষের জীবন যাত্রার মানের দর্শনীয় উন্নয়ন হবে। একই সাথে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রপ্তানি করেও প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আয় করা যাবে।
এসব অপ্রচলিত ফসলের চাষাবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধি এবং প্রক্রিয়াজাত করণে সব ধরণের সহযোগীতা প্রদান করা হবে বলে জানিয়ে কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, এসব ফসলের চাষ জনপ্রিয় করতে কৃষক ও উদ্যোক্তাদেরকে আমরা বিনামূল্যে উন্নত জাতের চারা, প্রযুক্তি ও পরামর্শ প্রদান করছি। কাজুবাদাম আমদানির উপর শুল্কহার প্রায় ৯০ শতাংশ থেকে নামিয়ে মাত্র ৫ শতাংশে নিয়ে আসা হয়েছে বলে কৃষিমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশে যাতে প্রক্রিয়াজাত প্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠে সে লক্ষ্যে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।
কৃষিমন্ত্রী জানান, দেশের যে সমস্ত অঞ্চলে কাজুবাদাম এবং কফির চাষাবাদের সম্ভাবনা রয়েছে কিন্তু বর্তমানে চাষাবাদ হচ্ছে না পর্যায়ক্রমে সেসব এলাকা কাজুবাদাম ও কফি চাষের আওতায় আনা হবে। “কাজুবাদাম ও কফি গবেষণা, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ” শীর্ষক ২১১ কোটি টাকার প্রকল্প নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।
বিভিন্ন বাগান পরিদর্শন কালে রুমার মুনলাই পাড়ার এক আলোচনায় এসব কথা বলেন তিনি। কৃষিমন্ত্রীর সফর সঙ্গী হিসেবে ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

ডেইলি/এস


এই রকম আরও খবর

সর্বশেষ খবর

বিশেষ খবর