আজ- বুধবার, ১২ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ধকল কাটিয়ে চাঙ্গা হচ্ছে মার্কিন অর্থনীতি

  • 1
    Share

।। ডেস্ক রিপোর্ট ।।

করোনা মহামারির ধকল অনেকটাই কাটিয়ে উঠে ফের গতিশীল হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির চাকা। বৃহস্পতিবার দেশটির সরকার জানিয়েছে, ২০২১ সালের প্রথম তিন মাসে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৬ দশমিক ৪ শতাংশ।

এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার। বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, চলতি বছরের পরবর্তী তিনি মাসে, এপ্রিল-জুন পর্যন্ত এই ‍প্রবৃদ্ধির হার আরো বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে।

২০২০ সালে মহামারি শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। এক বছরেরও বেশি সময় ধরে দৈনিক আক্রান্ত ও মৃত্যুর তালিকাতেও শীর্ষে ছিল যুক্তরাষ্ট্র।

তবে গত ডিসেম্বর থেকে দেশজুড়ে গণটিকাদান কর্মসূচি শুরুর পর বর্তমানে করোনায় দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যু অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে সক্ষম হয়েছে দেশটি।

এদিকে, মহামারির শুরুর ব্যাপক সংক্রমণ, মৃত্যু এবং সংক্রমণ ঠেকাতে লকডাউন আরোপ, জনসমাগমে নিষেধাজ্ঞা প্রভৃতি কারণে প্রায় অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিতে। একদিকে দোকানপাট, শপিং মল, সুপার স্টোর ও ব্যবসায়িক কেন্দ্রগুলো দিনের পর দিন বন্ধ ছিল, অন্যদিকে বেসরকারী খাতের লাখ লাখ মানুষ চাকরি হারিয়েছেন সে সময়।

ফলে, প্রায় মানবিক বিপর্যয়ের মুখে পড়েছিল সে সময় যুক্তরাষ্ট্র। কর্মসংস্থান হারানো এবং অর্থনৈতিক কার্যক্রমে স্থবিরতার কারণে গৃহহীন মানুষের সংখ্যাও বেড়ে গিয়েছিল অনেক। দেশটির সরকারী হিসেব বলছে, গত বছর আগস্টে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি সংকুচিত হয়েছিল ৩১ শতাংশ।

তবে চলতি বছর সেই দুর্যোগ অনেকটাই কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হয়েছে দেশটি। বৃহস্পতিবারের সরকারী বিবৃতিতে বলা হয়েছে, চলতি বছর মার্চে যুক্তরাষ্ট্রের বেসরকারী খাতে নতুন চাকরি যুক্ত হয়েছে ৯ লাখ ১৬ হাজার।

দেশটির আবাসনবিষয়ক সরকারী কর্তৃপক্ষ ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব রিয়েল্টরস জানিয়েছে, মার্চে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক আমেরিকান নাগরিক আবাসনের জন্য আবেদন করেছেন এবং প্রতিদিনই আবেদনের সংখ্যা বাড়ছে।

গত বছর মার্চের তুলনায় চলতি বছর মার্চে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতির  প্রায় ৮০ শতাংশ সম্প্রসারণ ঘটেছে বলেও জানানো হয়েছে বিবৃতিতে। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, এর আগে ১৯৮৪ সালের প্রথম তিন মাসে এই পরিমান অগ্রগতি দেখা গিয়েছিল দেশটির অর্থনীতিতে।

তারা আরো বলেন, ব্যাপক ও বিস্তিৃত মাত্রায় গণটিকাদান, দৈনিক আক্রান্ত ও মৃত্যুহার কমে আসা, সরকারের বিপুল পরিমান আর্থিক প্রণোদনা, ধীর গতিতে হলেও অর্থনৈতিক কার্যক্রম শুরু হওয়া এবং বেসরকারী খাতে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির ফলেই প্রবৃদ্ধির এই অর্জন সম্ভব হয়েছে।

বার্তাসংস্থা এপি নিউজকে দেশটির অর্থনীতিবিদ গ্রেগরি ডাকো বলেন, ‘দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা দৃশ্যমান উন্নতি হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের অর্থনৈতিক প্রণোদনা অব্যাহত আছে এবং নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হচ্ছে। এইসব কারণেই অর্থনীতির চাকা নতুন গতিতে ঘুরছে এখন।’

ডেইলি / এইচ


  • 1
    Share

এই রকম আরও খবর

সর্বশেষ খবর

বিশেষ খবর